শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪
খবর
ঘূর্ণিঝড় রেমাল এর প্রভাবে মেঘনা ধনাগোদা সেচ প্রকল্প বেড়ীবাঁধে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি, জরুরী মেরাম
2024-06-05 06:09:00
বিশেষ প্রতিনিধি

গোলাম নবী খোকনঃ

দেশের অন্যতম সেচ প্রকল্প মেঘনা ধনাগোদা বন্যা নিয়ন্ত্রণ বেড়ীবাঁধ। এ বাধঁ তিনটি উদ্দেশ্য নিয়ে ১৯৮৯-৮০ সালে ৬০ কিঃ মিঃ জায়গা জুড়ে সাড়ে সতর হেক্টর ভূমি নিয়ে চারিদিকে নদী বেষ্টিত এলাকা জুড়ে বাস্তবায়ন শুরু হয়। এ  প্রকল্পের তিনটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল বন্যা নিয়ন্ত্রণ, পানি নিষ্কাশন ও ইরিকেশন অর্থাৎ সেচ ব্যবস্থা। প্রথম প্রথম ১২/১৩ হাজার হেক্টর জমিতে সেচ সুবিধা দিতে পারলেও এখন আস্থে আস্তে কমে গিয়ে ৫/৬ হাজার হেক্টর দারিয়েছে। কিছু কিছু অসাধু লোকের কারনে প্রকল্পের ব্যাপক ক্ষতি গ্রস্ত হচ্ছে। একদিকে অবৈধ স্হাপনার হিড়িক, পানি নিষ্কাশন খাল গুলি বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম হয়ে পরছে। আরেক দিকে অপরিকল্পিত ভাবে বাড়ি ঘর তৈরী করা হচ্ছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কিন্তু পারছেনা কিছু স্বার্থন্বেষী মহলের কারনে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের লোকজন ও তেমন নজর দারী করছেন না। এদিকে সমস্যা রয়েছে এক, আবার কয়েক দিন পূর্বে বয়ে গেল ঘূর্ণিঝড় রেমাল, এর প্রভাবে অতি বৃষ্টির কারনে  বেড়ীবাঁধের কান্ট্রি ও রিভার সাইডে পুরো বাঁধে প্রায় আড়াই থেকে তিন শত ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সামনে আসছে বর্ষা মৌসুম। এ ছাড়া বর্ষা মৌসুমে ঝড় বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা বেশী। সে কারনে বর্ষা মৌসুমে বেড়ীবাঁধের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে। এবং বাঁধ হুমকির সম্মুখীন হতে হয়। গত ২ রা জুন বাঁধের এনায়েত নগর  সাহেব বাজার, ঠেটালীয়া, সিপাই কান্দি,  পশ্চিম বাইশপুর, গাজীপুর, চরমাছুয়া, আমিরাবাদ, ফরাজি কান্দি, একলাশপুর ও মোহনপুর এলাকা ঘুরে  বাঁধের উপরে  অসংখ্য গর্ত লক্ষ করা গেছে।  সরজমিন তদন্ত করে জরুরী ভিত্তিতে সংস্কার কাজ করার জন্য মেঘনা ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী জয়ন্তুপালের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। এদিকে কিছু দিন পূর্বে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা বন্ধ করে রাখায় মতলব উত্তর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একি মিত্র চাকমা পানি নিষ্কাশন বন্ধ করে রাখা খালের উপর বাঁধ কেটে দিয়ে পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা চালু করে দিয়েছেন। গর্ত ভরাটের ব্যাপারে মেঘনা ধনাগোদা সেচ প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী জয়ন্তুপাল বলেন ঘূর্ণিঝড় রেমাল এর  প্রভাবে অতি বৃষ্টির কারনে যে সমস্ত গর্ত  হয়েছে, এবিষয়ে   রোডস এন্ড হাইওয়ের নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে কথা হয়েছে,  জরুরী ভিত্তিতে সংস্কার কাজ করা হবে বলে জানিয়েছেন ।